ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ১২ জৈষ্ঠ্য ১৪২৮, ২১ জ্বমাদিউল সানি ১৪৪৩
ব্যাংকের নজর বড়দের দিকে

অবহেলিত এসএমই উদ্যোক্তা



 অবহেলিত এসএমই উদ্যোক্তা

এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন বলেছেন, দেশের বেশির ভাগ ব্যাংক করপোরেটদের নিয়েই ব্যস্ত। ব্যাংক থেকে বড়রাই ঋণ পাচ্ছে, তারা ছোট উদ্যোক্তাদের (এসএমই) দিকে নজর দিতে চায় না। ৫০ জন বড় কাস্টমারকে ব্যাংকগুলো যে ঋণ দেয়, তার এক অংশ ঋণ পাচ্ছেন ৪ লাখ এসএমই উদ্যোক্তা। এ মনোভাবের পরিবর্তন হওয়া দরকার জানিয়ে তিনি বলেন, এ ধরনের মনোভাব পরিহার করতে এসএমই উদ্যোক্তাদের জন্য ব্যাংকিং নিয়মেই একটা নির্দিষ্ট অর্থ ঋণ বিতরণে ব্যাংকগুলোকে সরকারের বাধ্য করা উচিত। ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি আয়োজিত মিট দ্য প্রেসে এসব কথা বলেন জসিম উদ্দিন।

‘৫০ জন বড় কাস্টমার যে ঋণ পায়, তার এক অংশ পাচ্ছেন ৪ লাখ এসএমই উদ্যোক্তা। অথচ দেশের অর্থনীতির ৮৫ ভাগ অবদান এসএমই’দের’

করোনাকালে সরকারের প্রণোদনা ঋণ বিতরণে ব্যাংকগুলোর বৈষম্যের দৃষ্টান্ত তুলে ধরেন এফবিসিসিআই সভাপতি বলেন, ‘ব্যবসায়ীদের সর্বোচ্চ সংগঠনের নেতৃত্বে এসে আমরা দেখেছি ৫০ জন বড় কাস্টমারকে ব্যাংকগুলো যে ঋণ দেয়, তার এক অংশ ঋণ পাচ্ছেন ৪ লাখ এসএমই উদ্যোক্তা। বাকিরা তো পাচ্ছেনই না। অথচ দেশের অর্থনীতির ৮৫ ভাগ অবদান রেখে আসছেন এই এসএমইরা।’

খেলাপি ঋণের বেশির ভাগই করপোরেটদের কাছে পাওনা বলে জানিয়ে বেঙ্গল গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন বলেন, ‘ব্যাংকব্যবস্থায় খেলাপির হার ৮ দশমিক ৭ শতাংশের মতো। এই যে বিপুল পরিমাণ খেলাপি, সবকটিই বড় করপোরেটদের। আমি নিজেও একটি ব্যাংকের চেয়ারম্যান (বেঙ্গল ব্যাংক)। এসএমইরা ঋণের টাকা মারেন না। তারা সব ঋণ ফেরৎ দেন। তাই আমি বোর্ড সভায় আমার বোর্ড অফ ডিরেক্টরসদের বলে দিয়েছি, আমাদের করপোরেট প্রতিষ্ঠান দরকার নেই, এসএমইরা যাতে কোনোভাবেই ঋণ বঞ্চিত না হন।’


   আরও সংবাদ