ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ১২ জৈষ্ঠ্য ১৪২৮, ২১ জ্বমাদিউল সানি ১৪৪৩
পরিবেশবান্ধব  

শীর্ষ ১০ কারখানার সাতটি বাংলাদেশের



শীর্ষ ১০ কারখানার সাতটি বাংলাদেশের

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের গ্রিন বিল্ডিং কাউন্সিলের (ইউএসজিবিসি) সনদ পেয়েছে আরও দুই পোশাক কারখানা। পরিবেশবান্ধব সনদ পাওয়া কারখানার মধ্যে একটি শারমিন গ্রুপের শারমিন অ্যাপারেলস ও শারমিন ফ্যাশনস লিমিটেড যেটি এই মানদণ্ডের সর্বোচ্চ স্বীকৃতি প্লাটিনাম সনদ পেয়েছে। অপর কারখানা এ এম ডিজাইন লিমিটেড পেয়েছে গোল্ড সনদ। এ নিয়ে বিশ্বের শীর্ষ ১০টি কারখানার মধ্যে সাতটিই বাংলাদেশের। 

আলোচ্য দুটি কারখানা মিলিয়ে দেশে এখন ইউএসজিবিসির লিড (লিডারশিপ ইন এনার্জি অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল ডিজাইন) সনদপ্রাপ্ত কারখানার সংখ্যা ১৫৫। তৈরি পোশাক শিল্প মালিকদের সংগঠন বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রফতানিকারক সমিতি (বিজিএমইএ) এ তথ্য জানিয়েছে। বিজিএমইএর পক্ষ থেকে জানানো হয়, আলোচ্য কারখানা দুটি গত ১২ ডিসেম্বর এ সনদ পায়।

ইউএসজিবিসি ট্রান্সফরমেশন পারফরম্যান্স, শক্তি, পানি, বর্জ্য ব্যবস্থাপনাসহ কয়েকটি মূল্যায়নের ভিত্তিতে ক্রাইটেরিয়া নির্ধারণ করে থাকে। এর মধ্যে সর্বোচ্চ প্লাটিনাম, যার অর্থ হলো পরিবেশবান্ধব হিসেবে কারখানাগুলো সব ধরনের কমপ্লায়েন্সের শর্ত মেনে চলে। এছাড়াও পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে যথাক্রমে গোল্ড, সিলভার ও কেবল 'সার্টিফায়েড' হিসেবে সনদ দিয়ে থাকে। দেশে ১৫৫টি সনদপ্রাপ্ত কারখানার মধ্যে প্লাটিনাম সনদ রয়েছে ৪৬টির, গোল্ড সনদ রয়েছে ৯৫টি কারখানার, ১০টি কারখানার রয়েছে সিলভার সনদ আর ন্যূনতম সনদ রয়েছে ৪টি কারখানার।

২০০১ সালে দেশে প্রথম কোনো কারখানাকে পরিবেশবান্ধব সনদ প্রদান করা হয়। সদ্য সমাপ্ত ২০২১ সালে ২৪টি কারখানা এই সনদ পেয়েছে। সবচেয়ে বেশি ২৮টি কারখানা পরিবেশবান্ধব হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছিলো ২০১৯ সালে।


   আরও সংবাদ