ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ১২ জৈষ্ঠ্য ১৪২৮, ২১ জ্বমাদিউল সানি ১৪৪৩

কঠোর লকডাউনে রাজধানীতে দীর্ঘ যানজট




করোনা সংক্রমণ রোধে ঈদুল আজহার পর শুরু হওয়া কঠোর লকডাউনের নবম দিন শনিবার (৩১ জুলাই) সকাল থেকেই রাজধানীর সড়কে বেড়েছে ব্যক্তিগত গাড়ির সংখ্যা। গাড়ি ও রিকশার চাপে প্রধান প্রধান সড়কগুলোতে যানজটের সৃষ্টি হয়। রাজধানীর কারওয়ানবাজার, বাংলামটর, শাহবাগ, ফার্মগেট ও মগবাজার এলাকা ঘুরে এমন চিত্রই দেখা গেছে।

বাংলামটর এলাকা ঘুরে দেখা যায়, শাহবাগমুখি ব্যক্তিগত গাড়ি ও রিকশার চাপে কারওয়ানবাজার পর্যন্ত দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। এসময় ভ্রাম্যমাণ আদালতের একটি মাইক্রোবাসও আটকে থাকতে দেখা যায়। বাংলামটরের প্রতিটি মোড়ে অসংখ্য রিকশা দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেছে। পাশাপাশি ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেলের আনাগোনাও ছিলো চোখে পড়ার মতো।

এদিকে মগবাজার থেকে বাংলামটরমুখি গাড়ির চাপে মগবাজার ফ্লাইওভার পর্যন্ত যানজটের সৃষ্টি হয়। যেখানে রিকশার তুলনায় ব্যক্তিগত গাড়ির সংখ্যাই ছিলো বেশি। তবে শাহবাগ থেকে কারওয়ান বাজার এবং বাংলামটর থেকে মগবাজারমুখি গাড়ির চাপ কিছুটা কম থাকলেও চতুর্মখি গাড়ি নিয়ন্ত্রণ করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে তৎপর দেখা গেছে। গাড়ি থামিয়ে যাত্রীদের রাস্তায় বের হওয়ার কারণও জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন তারা।

কারওয়ান বাজার এলাকা ঘুরে দেখা যায়, ব্যক্তিগত রিকশা রাস্তার অনেকটাই দখল করে রেখেছে। এখানেও ব্যক্তিগত গাড়ির চাপ বিগত দিনের তুলনায় অনেকটা বেড়েছে। পান্থপথ, ফার্মগেট, বিএফডিসি ও বাংলামটর থেকে আসা গাড়ির চাপে থেমে থেমে যানজটের সৃষ্টি হয়। যানজট নিরসনে এখানেও আইনসৃঙ্খলা বাহিনীকে তৎপর হতে দেখা গেছে।

সোনারগাঁ হোটেলের সামনে কথা হয় বিপ্লব রেজা নামের এক সাংবাদিকের সাথে। তিনি বলেন, আমি একজন সংবাকর্মী। লকডাউনেও আমাকে অফিস করতে হয়। মিরপুর ১০ নাম্বার থেকে প্রতিদিন বাংলামটর গিয়ে অফিস করতে হয়। গণপরিবহন না থাকায় ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেল অথবা রিকশাই একমাত্র ভরসা। কিন্তু রিকশা চালকরা ভাড়া চাচ্ছে তিন থেকে চারগুন। কাজিরপাড়া এলাকা থেকে বাংলামটর পর্যন্ত যেতে ভাড়া চাচ্ছে ৩০০ থেকে ৫০০ টাকা পর্যন্ত। যা অনেকটাই আমাদের সাধ্যের বাইরে।

মতিঝিলে একটি বেসরকারি ব্যাংকে চাকরি করেন সিরাজুল ইসলাম। তিনি বলেন, মিরপুর থেকে অফিসের উদ্দেশে রওয়ানা দিয়েছি। রাস্তায় এসে দেখি শুধু রিকশা আর রিকশা। অনেক সময় পর পর দুই একটা মোটরসাইকেল এলেও একসঙ্গে অনেকে সেটিতে উঠতে চায়। সুযোগ বুঝে চালক তিন থেকে চারগুণ বেশি ভাড়া হাঁকান। তিনি বলেন, অন্তত ৩০ মিনিট অপেক্ষার পর সাড়ে ৫০০ টাকা ভাড়ায় একটি মোটরসাইকেলকে রাজি করাই। অন্যান্য সময়ে মিরপুর থেকে মতিঝিলে ভাড়া ২২০ থেকে ২৫০ টাকা।

এদিকে শাহবাগে রিকশা ও ব্যক্তিগত গাড়ির চাপে থেমে থেমে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। এখানে ব্যক্তিগত গাড়ির তুলনায় রিকশার আধিক্য বেশি লক্ষ্য করা গেছে। যানজট নিরসনে ব্যস্তসময় পার করছে আইনসৃঙ্খলা বাহিনী। একই চিত্র দেখা গেছে ফার্মগেট এলাকায়।

করোনা সংক্রমণ কমাতে ১ থেকে ৭ জুলাই কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করে সরকার। পরে তা ১৪ জুলাই পর্যন্ত বাড়ানো হয়। ঈদুল আজহার কারণে ১৫ থেকে ২২ জুলাই পর্যন্ত কঠোর বিধিনিষেধ শিথিল হয়। ২৩ জুলাই থেকে ৫ আগস্ট পর্যন্ত কঠোরতম বিধিনিষেধ আরোপ করে সরকার।


   আরও সংবাদ