ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ১২ জৈষ্ঠ্য ১৪২৮, ২১ জ্বমাদিউল সানি ১৪৪৩

ওমিক্রনের পর ‘ডেল্টাক্রন’



ওমিক্রনের পর ‘ডেল্টাক্রন’

  • সংক্রমনের শীর্ষে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগীরা
  • ২৫ জনের দেহে শনাক্ত

একের পর এক করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট নাড়িয়ে দিচ্ছে বিশ্বকে। কোনভাবেই রোধ করা যাচ্ছে না এ মহামারিকে। কভিড-১৯ সর্বশেষ ভ্যারিয়েন্ট ছিলো ওমিক্রন। এরই মধ্যে আরও এক স্ট্রেনের খোঁজ পেয়েছে বিজ্ঞানীরা। তারা বলছে নতুন আতঙ্ক নিয়ে আসছে ডেল্টাক্রন। ওমিক্রন ও ডেল্টার মিলিত উপসর্গ আছে নতুন এই স্ট্রেনে। আর সেই কারণেই নতুন এই ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে বেশ উদ্বেগে বিশেষজ্ঞরা।

সম্প্রতি সাইপ্রাসে পাওয়া গেছে নতুন এই স্ট্রেন। এ প্রসঙ্গে ইউনিভার্সিটি অব সাইপ্রাসের ল্যাবরেটরি অব বায়োটেকনোলজি অ্যান্ড মলিকিউলার ভাইরোলজির প্রধান লিওনডিওস কোস্ট্রিকিস জানান, ‘একই রোগীর নমুনায় করোনার ডেল্টা ও ওমিক্রনের উপসর্গ মিলেছে। আমাদের অনুমান, কোভিডের দুটি স্ট্রেনের লক্ষণ মিলিয়ে আরও এক নতুন স্ট্রেনের জন্ম হয়েছে। ওমিক্রন জিনোম আর ডেল্টা জিনোম দুইয়ের মিলিত উপসর্গই আছে এ স্ট্রেনে, সে কারণেই এর নাম দেওয়া হয়েছে ডেল্টাক্রন।’

শুধু একজনের শরীরেই নয় বরং ২৫ জনের মধ্যে করোনার নতুন এই স্ট্রেনের দেখা মিলেছে। গবেষণার রিপোর্ট বলছে, সাইপ্রাসের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগীদের দেহে ডেল্টাক্রন ভ্যারিয়েন্ট মিলেছে। তবে যারা হাসপাতালে ভর্তি হননি, তাদের মধ্যে সংক্রমণ তুলনামূলকভাবে কম। খুব দ্রুত ওই স্ট্রেন ছড়িয়ে পড়ছে বলেও দাবি করছেন গবেষকদের।

গত ৭ জানুয়ারি ওই ২৫ জন ডেল্টাক্রনে আক্রান্ত রোগীর নমুনা জিআইএসএআইডিতে পাঠানো হয়েছে। আন্তর্জাতিক সংস্থাটি ভাইরাসের প্রকৃতিতে যে কোনো বদল রেকর্ড করে থাকে। এ বিষয়ে অধ্যাপক লিওনডিওস কস্ট্রিকিস বলেন, ‘এই নতুন স্ট্রেন প্যাথলজিক্যাল নাকি বেশি সংক্রামক, তবে তা নিয়ে আরও পরীক্ষার প্রয়োজন। গবেষকরা জানিয়েছেন, ডেল্টা ও ওমিক্রনের উপসর্গই আছে ডেল্টাক্রনে আক্রান্তদের মধ্যে।

সূত্র: ফোর্বস/সিএনবিসি/টাইমস অব ইন্ডিয়া


   আরও সংবাদ