ঢাকা, শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪ মাঘ ১৪২৯, ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

তেলের দাম অনেক দেশের তুলনায় কম: তথ্যমন্ত্রী



তেলের দাম অনেক দেশের তুলনায় কম: তথ্যমন্ত্রী

মূল্যবৃদ্ধির পরও এদেশের জ্বালানি তেলের দাম অনেক দেশের তুলনায় কম বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। শনিবার সকালে ‘স্পর্ধিত তারুণ্যের প্রতিচ্ছবি শেখ কামাল’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এ মন্তব্য করেন। 

সংযুক্ত আরব আমিরাত, সিঙ্গাপুর, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, নেপালসহ বেশ কয়েকটি দেশের তেলের মূল্য তালিকা তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘মূল্যবৃদ্ধির পর এদেশে জ্বালানি তেলের দাম যেই পর্যায়ে গেছে, আশপাশের দেশগুলোতে সেই পরিমাণ মূল্যবৃদ্ধি অনেক আগেই করেছে। মূল্য সমন্বয় করার পর এদেশের জ্বালানি তেলের দাম আশপাশের দেশগুলোর পর্যায়ে গেছে মাত্র। কিন্তু তেলের দাম অনেক দেশের তুলনায় কম। আরব আমিরাত, চীন, নেপাল, ইন্দোনেশিয়া, সিঙ্গাপুর, হংকংসহ অনেক দেশের চেয়ে তেলের দাম এদেশে কম এবং ভারতের সমান। অর্থাৎ মূল্যবৃদ্ধির পরও অনেক দেশের তুলনায় কম।’

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘২০২১-২২ অর্থবছরে সরকার জ্বালানি ও বিদ্যুৎ খাতে ৫৩ হাজার কোটি টাকা ভর্তুকি দিয়েছিল। আশপাশের দেশগুলো এ ধরনের ভর্তুকি দেয়নি। সেসব দেশে জ্বালানি তেলের মূল্য অনেক আগেই বাড়ানো হয়েছে। এদেশের চেয়ে ওই দেশগুলোতে জ্বালানি তেলের মূল্য অনেক বেশি। ভারতে ডিজেলের মূল্য বাংলাদেশি টাকায় ১১৪ টাকা এবং অকটেন ১৩৫ টাকা অনেক আগে থেকেই। আমাদের দেশে দাম কম হওয়ার কারণে সীমান্ত দিয়ে প্রচুর জ্বালানি তেল পাচার হয়ে যাচ্ছিল।

তিনি বলেন, ‘দেশের পক্ষে বর্তমানে এভাবে ভর্তুকি দেওয়া সম্ভব নয়। এতে সাধারণ মানুষের কিছুটা অসুবিধা হতে পারে। কেননা বিশ্ববাজারে তেলের মূল্য অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। এখন হয়তো অনেক বিশেষজ্ঞ রাত ১২টায় টেলিভিশন গরম করবেন। এদেশে তো নানা ধরনের বিশেষজ্ঞ রয়েছে। তারা সবজান্তা বিশেষজ্ঞ। কেউ ঢাবিতে আইন পড়ে এবং পড়িয়ে অর্থনীতির বিশেষজ্ঞ, আবার কেউ অর্থনীতি পড়ে তেল-গ্যাস বিশেষজ্ঞ। অর্থাৎ সব বিষয়ে বিশেষজ্ঞ। তারা টেলিভিশনে নানা ধরনের কথা বলবেন।


   আরও সংবাদ