Home / Featured / করোনা: যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশীদের মৃত্যু ঝুঁকি বেশি

করোনা: যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশীদের মৃত্যু ঝুঁকি বেশি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: যুক্তরাজ্যে অন্যান্য জাতিগোষ্ঠীর চাইতে করোনায় বাংলাদেশী বংশোদ্ভূতদের মৃত্যু ঝুঁকি বেশি। মঙ্গলবার (২ জুন) প্রকাশিত এক গবেষণা প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

পাবলিক হেলথ ইংল্যান্ডের ওই গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়, শ্বেতাঙ্গদের চেয়ে বাংলাদেশী বংশোদ্ভূতদের করোনায় মৃত্যু ঝুঁকি দ্বিগুণ। আর চীনা, ভারতীয়, পাকিস্তানি, অন্যান্য এশীয়, ক্যারিবিয়ান ও অন্যান্য কালো মানুষের মৃত্যু ঝুঁকি শ্বেতাঙ্গদের তুলনায় ১০ থেকে ৫০ শতাংশ বেশি।

যুক্তরাজ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন প্রায় ৫০ হাজার মানুষ। সরকারি হিসাবে ইংল্যান্ড, স্কটল্যান্ড, ওয়েলস ও নর্দার্ন আয়ারল্যান্ডে এই রোগে মারা গেছেন ৪৯ হাজার ৩৬৮ জন। এদের মধ্যে সংখ্যালঘু সম্প্রদায় অর্থাৎ কালো ও এশীয়রাই তুলনামূলক বেশি মারা গেছেন। ফলে এর কারণ খুঁজে বের করার দাবি ওঠায় পাবলিক হেলথ ইংল্যান্ড এ নিয়ে গবেষণা চালায়।

গবেষণা প্রতিবেদনটি বলছে, গত ১৩ মে পর্যন্ত কোভিড-১৯য়ে আক্রান্ত হয়েছেন মোট ৭০৮ বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত। তাদের মধ্যে করোনায় ১৮২ জন মারা গেছেন। ওই সময়ের মধ্যে দেশটিতে পাকিস্তানি ৪৮৩, ভারতীয় ৭৪৬ এবং ১ হাজার ১৪৩ জন আফ্রো-ক্যারিবীয় মারা গেছেন। আর ১৩ মে পর্যন্ত শ্বেতাঙ্গ মারা গেছেন ২২ হাজার ৮৮০ জন।

পাবলিক হেলথ ইংল্যান্ডের ৮৯ পৃষ্ঠার ওই প্রতিবেদনের জানানো হয়, কালো ও এশীয় সংখ্যালঘুদের মধ্যে করোনাভাইরাসে মৃত্যুর হার ছিলো সবচেয়ে বেশি। যদিও অতীতে শ্বেতাঙ্গদের চেয়ে কালো ও এশীয়দের মৃত্যুর হার কম ছিলো।

এদের মধ্যে ৮০ বছর বা তার বেশি বয়সীদের মৃত্যু ঝুঁকি ছিল ৪০ বছরের কম বয়সীদের তুলনায় ৭০ গুণ বেশি। এছাড়া করোনায় নারীদের তুলনায় পুরুষের মৃত্যু ঝুঁকি দ্বিগুণ। একই সঙ্গে উন্নত এলাকায় বসবাসকারীদের চেয়ে অনুন্নত এলাকার বাসিন্দাদের মৃত্যু ঝুঁকি বেশি।

তবে এই গবেষণায় পেশা, স্বাস্থ্যগত বিষয় ও স্থূলতার দিকটি বিবেচনায় আনা হয়নি।

এনকে

About দেশ খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Powered by Dragonballsuper Youtube Download animeshow