সংবাদ শিরোনামঃ
স্বাধীনতাযুদ্ধের চূড়ান্ত প্রস্তুতি নেয়ার দিন আজ!  ***  ঐতিহাসিক ৭ মার্চ; বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা  ***  ভবানীগঞ্জ জনগণের দ্বারে দ্বারে মামুন অর রশিদ ভুঁইয়া  ***  সংশোধন হবে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন : আইনমন্ত্রী  ***  ঝিনাইদহের ফারুকের প্রয়োজন একটি প্লাস্টিকের পা  ***  লক্ষ্মীপুরে সড়ক খোঁড়াখুঁড়িতে গ্যাস ও বিটিসিএল লাইন বিচ্ছিন্ন  ***  নৌকার প্রতীক পেলে জনগণের সেবক হিসেবে কাজ করবো:সাবেক যুবলীগ নেতা পলাশ  ***  রায়পুরে কাউন্সিলর নির্বাচিত হলেন ছাত্রলীগ নেতা রিজভী  ***  রায়পুর পৌর নির্বাচনে আ'লীগের জয়  ***  সাংবাদিকের ক্যামেরা থেকে `ভোট কারচুপি'র ভিডিও ডিলেট করালেন আ'লীগ সভাপতি
Home / অর্থনীতি / কৃষকের কাছ থেকে ৩৫৬ টন ধান কিনবে লক্ষ্মীপুর খাদ্য গুদাম

কৃষকের কাছ থেকে ৩৫৬ টন ধান কিনবে লক্ষ্মীপুর খাদ্য গুদাম

আলমগীর হোসেন (লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি): কৃষকের কাছ থেকে ৩৫৬ মে. টন ধান কিনবে লক্ষ্মীপুর খাদ্যগুদাম।প্রতি কেজি ধানের মূল্য ধরা হয়েছে ২৬ টাকা। ১ হাজার ২৩২ জন কৃষকের কাছ থেকে প্রতি মণ ধান ১ হাজার ৪০ টাকা দরে সংগ্রহ করবে সদর উপজেলা খাদ্যগুদাম। দালালদের দৌরাত্ম্য রোধে এবার অ্যাপসের মাধ্যমে নিবন্ধিত কৃষকদের কাছ থেকে ধান সংগ্রহ শুরু করেছে কর্তৃপক্ষ।

মঙ্গলবার (২২ ডিসেম্বর) দুপুরে সদর উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রণ কার্যালয়ে ফিতা কেটে এর কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসক অঞ্জন চন্দ্র পাল। এ ধান সংগ্রহের কার্যক্রম চলবে আগামী বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।

সদর ইউএনও মোহাম্মদ মাসুমের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মংখ্যাই। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা খাদ্যগুদামের পরিদর্শক (ওসি-এলএসডি) নাইমুল করিম টিটু, ধান সংগ্রহ কমিটির সদস্য ও সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান হাফিজ উল্যাহসহ খাদ্য নিয়ন্ত্রণ বিভাগের কর্মকর্তা ও কৃষকরা। এছাড়া ধান বিক্রয়কারী কয়েকজন কৃষকও উপস্থিত ছিলেন।

খাদ্য নিয়ন্ত্রণ কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, লক্ষ্মীপুরে এবার অ্যাপের এর মাধ্যমে সরাসরি কৃষকের কাছ থেকে ধান সংগ্রহ কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। লক্ষ্মীপুর পৌরসভা ১০৩ কৃষকসহ ২১টি ইউনিয়নের ১ হাজার ২৩২ জন প্রান্তিক কৃষকের নাম এ অ্যাপসে নিবন্ধন করা হয়েছে। এতে মন প্রতি ১ হাজার ৪০ টাকা হারে (প্রতি কেজি ২৬ টাকা) ৩৫৬ মে. টন ধান সংগ্রহ করা হবে। প্রতি কৃষক সর্বনিম্ন ১২০ কেজি থেকে শুরু করে ৬ মে.টন পর্যন্ত আমন ধান খাদ্য নিয়ন্ত্রণ বিভাগের কাছে বিক্রি করতে পারবেন। এর আগে গত ২০ নভেম্বর পর্যন্ত কৃষি বিভাগ ও খাদ্য নিয়ন্ত্রণ বিভাগের পক্ষ থেকে যৌথভাবে কৃষকের অ্যাপ-এ লক্ষ্মীপুরের প্রান্তিক কৃষকদের নিবন্ধণ কার্যক্রম ও সচেতনতামূলক প্রচার-প্রচারণা করা হয়।

সদর উপজেলা খাদ্যগুদামের পরিদর্শক (ওসি-এলএসডি) নাইমুল করিম টিটু বলেন, ‘অ্যাপসের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন করা কৃষকদের কাছ থেকে ধান সংগ্রহ করা হবে। আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত কৃষকদের কাছ থেকে আমরা ধান সংগ্রহ করবো।’

এ ব্যাপারে লক্ষ্মীপুর সদর ইউএনও মোহাম্মদ মাসুম বলেন, ‘দালালদের দৌরাত্ম্য রোধে আমরা অ্যাপসের মাধ্যমে কৃষকদের কাছ থেকে ধান সংগ্রহ শুরু করেছি। এতে নিবন্ধিত কৃষক ছাড়া অন্য কারো ধান বিক্রির সুযোগ নেই। খাদ্যগুদামের তালিকায় প্রকৃত কৃষকদের নিবন্ধিত করা হয়েছে।’

সম্পাদনায়: নাঈম কামাল

About Alamgir Hossain

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Powered by Dragonballsuper Youtube Download animeshow