Home / জেলার সংবাদ / করোনাভাইরাস: থানকুনি পাতা গুজবে ঘুম হারাম

করোনাভাইরাস: থানকুনি পাতা গুজবে ঘুম হারাম

দেশ খবর প্রতিবেদকঃ করোনা আতঙ্কে নানা ধরণের গুজবে কান দিচ্ছেন দেশের মানুষ। থানকুনি পাতা খেলে করোনাভাইরাস ভালো হয়ে যাবে এমন গুজবে রাতের ঘুম হারাম হয়ে গেছে সারাদেশের কিছু মানুষের।

রাত জেগে থানকুনি পাতা সংগ্রহে মাঠে নেমে পড়েছেন অনেকেই। কেউ সংগ্রহ করতে পেরেছেন আবার কেউ পারেননি। যারা রাতে সংগ্রহ করতে পারেননি কিংবা কোথাও খুঁজে পাননি তারা সকাল সকাল ছুটেছেন বাজারে।

একজন প্রসিদ্ধ পীর স্বপ্ন দেখেছেন তিনটি থানকুনি পাতার আর এক গ্লাস পানি খেলে করোনাভাইরাস ছুঁতেও পারবে না। আর এই রাতের মধ্যেই পাতা তিনটি খেতে হবে। সেই গুজবে সাড়া দিয়ে রাতের আঁধারে থানকুনি পাতা সংগ্রহে নামেন সিরাজগঞ্জে শাহজাদপুর এবং লক্ষ্মীপুরসহ দেশের অধিকাংশ মানুষ। অনেকে ইতিমধ্যে চিবিয়ে খেয়েছেন সে পাতা। তারা বলছেন, এই থানকুনি পাতাই করোনাভাইরাসের উত্তম প্রতিষেধক।

জানা গেছে, মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) দিবাগত রাত ১২টা থেকে শুরু হয়েছে এ গুজব। ফেসবুকে এ নিয়ে পোস্ট দিয়েছেন অনেকেই। কেউ কেউ থানকুনি পাতা সংগ্রহ করতে পেরেছেন জানিয়ে ছবিও পোস্ট করেছেন। কেউ কেউ স্বজন, বন্ধুদের ফোন করে ঘুম ভাঙাচ্ছেন এবং জরুরি ভিত্তিতে থানকুনি পাতা সংগ্রহের তাগিদ দিচ্ছেন।

এদিকে রাজধানী ঢাকার হাতিরপুল কাঁচা বাজারে থানকুনি পাতা সংগ্রহে মানুষের উপচে পড়া ভীড় দেখা গেছে। পাতা ক্রয় করতে শুরু হয় হট্টগোল। এই সুযোগে জমে উঠেছে থানকুনি পাতার রমরমা ব্যবসা। ১০ টাকার পাতা বিক্রি হচ্ছে ১০০ টাকা পর্যন্ত।

আরিফ নামে এক ব্যক্তি জানান, তিনি গতকাল মোয়াখালী তার শশুর বাড়িতে ছিলেন। করোনা থেকে বাঁচতে সকাল ৭টা ৩০ মিনিটে তার শাশুড়ি ৫টা থানকুনি পাতা ১০০ টাকায় ক্রয় করেন। পরে তিনি তার শাশুড়িকে বুঝানোর চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছেন।

তবে ফেসবুকের এই গুজব কানে তোলেননি স্থানীয়দের কেউ কেউ। তারা গুজবে কান না দিতে স্ট্যাটাস দিয়েছেন। তারা বলছেন, এমন গুজবের উৎপত্তি কোথা থেকে তা কেউ জানে না। আবার কেউ কেউ সচেতন ব্যক্তিদেরকে ফোন কল করে তথ্য যাচাই করছেন। তারা যতটুকু সম্ভব মানুসকে সচেতন করার চেষ্টা করছেন।

আমাদের এ প্রতিবেদকে তার নিকটাত্মীয় মুঠোফোনে কল দিয়ে থানকুনি পাতা গুজবের বিষয়ে জানান। সবাই যেভাবে পাতা সংগ্রহ করছেন এবং চিবিয়ে খাচ্ছেন তার সত্যতা সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন। তবে তিনি এ গুজবে কান দেননি বলে জানা গেছে।

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাস নিয়ে বেশ কয়েকটি ভুল ও ভুয়া তথ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরপাক খাচ্ছে। বিশেষ করে ইউনিসেফের বরাত দিয়ে কিছু ভুল তথ্য প্রচারিত হচ্ছে। এ নিয়ে গবেষকরা সচেতনতামূলক পোস্ট দিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশে আরো দু’জনের মধ্যে নতুন করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১০ জনে দাঁড়িয়েছে। নতুন আক্রান্ত দু’জনের একজন প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে ছিলেন। অন্যজন বিদেশ ফেরত একজনের সংস্পর্শে আক্রান্ত হয়েছেন। তিনজন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন, বাকি ৭ জন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

About desh khobor

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Powered by Dragonballsuper Youtube Download animeshow