সংবাদ শিরোনামঃ
নৌকার প্রতীক পেলে জনগণের সেবক হিসেবে কাজ করবো:সাবেক যুবলীগ নেতা পলাশ  ***  রায়পুরে কাউন্সিলর নির্বাচিত হলেন ছাত্রলীগ নেতা রিজভী  ***  রায়পুর পৌর নির্বাচনে আ'লীগের জয়  ***  সাংবাদিকের ক্যামেরা থেকে `ভোট কারচুপি'র ভিডিও ডিলেট করালেন আ'লীগ সভাপতি  ***  রায়পুরে বিএনপি প্রার্থীর বাসার সামনে ককটেল বিস্ফোরণ  ***  বগুড়ায় বাসের ধাক্কায় অটোরিকশার ৪ যাত্রী নিহত  ***  সিলেটে দুই যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১১  ***  রায়পুরে আ'লীগের প্রার্থী রুবেল ভাটের নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষনা  ***  নোয়াখালীতে সাংবাদিক হত্যার প্রতিবাদে রায়পুরে মানববন্ধন  ***  লক্ষ্মীপুর আইনজীবি সমিতির নির্বাচনে সভাপতি শাহাদাত, সম্পাদক সবুজ
Home / Featured / ‌’প্রধান নির্বাচন কমিশনারের এক চোখ কানা ও এক কান টসা’

‌’প্রধান নির্বাচন কমিশনারের এক চোখ কানা ও এক কান টসা’

দেশখবর প্রতিবেদক : প্রধান নির্বাচন কমিশনারের কড়া সমালোচনা করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, এই যে প্রধান নির্বাচন কমিশন কেএম নুরুল হুদা এর এক চোখ কানা ও এক কান টসা। উনি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ও প্রধানমন্ত্রীকে শুধু দেখতে পান। কিন্তু জনগণ ভোটার-নির্বাচন, নির্বাচনে ডাকাতি, কারচুপি জালিয়াতি দিনের ভোট রাতে এটা উনি দেখতে পান না। এইটা যদি তিনি দেখতে পেতেন তাহলে নির্বাচন ব্যবস্থা যে ধ্বংস হয়ে গেছে, ভোট ধ্বংস হয়ে গেছে সুস্থ ভোট ভোটারদেরকে নিরুদ্দেশে পাঠানো হয়েছে এইটা দেশে হতো না।

আজ সোমবার (১১ জানুয়ারি) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে নির্বাচন কমিশনের পদত্যাগ দাবিতে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি আয়োজিত এক বিশাল মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন, ফজলুল হক মিলন বলেছে গতকাল শ্রীপুরে বিএনপির প্রার্থীকে কুপিয়ে হাত বিচ্ছিন্ন করার মতো অবস্থা করেছে। শুধু তাই নয় ২০১৮ সালে এরা কত বড় কাপুরুষ, এরা কত বড় দুর্বৃত্ত যে এরা একজন নারীকে গুলি করে চোখ অন্ধ করে দিয়েছে সিরাজগঞ্জে কিন্তু তখনও গুরুত্ব দেননি এত বড় নির্লজ্জ এ নির্বাচন কমিশনার।

বিএনপির এই শীর্ষনেতা বলেন, কাপড় বিক্রেতা শাড়ি-লুঙ্গি বিক্রি করে, সবজি বিক্রেতা আলো টমেটো বেগুন বিক্রি করে। পতিতা দেহ বিক্রি করে আর কে এম নুরুল হুদা আত্মা বিক্রি করেছে শেখ হাসিনার কাছে। ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর ঢাকার প্রার্থীরা দেশের সব জায়গার প্রার্থীরা জানিয়েছেন, ভোটকেন্দ্রগুলোতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ঢুকছেন, দূর্বত্তরা ঢুকছেন এসমস্ত ঘটনা নির্বাচন কমিশনকে অবহিত করা হয়েছে। উনি নির্বাচন কমিশন কত বড় নির্লজ্জ আত্মা বিক্রি কারী উনি ৩১ ডিসেম্বর বললেন নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে সঠিক হয়েছে।

রিজভী বলেন, যে লোক খারাপ সে সবদিক দিয়ে খারাপ। যে আত্মা বিক্রি করতে পারে যার আত্মা নেই, যে সত্য কথা বলতে পারে না সে টাকাও চুরি করতে পারে। তার কমিশনের বিরুদ্ধে টাকা চুরি করার অভিযোগ করেছে দেশের ৪১ জন বুদ্ধিজীবী এটা তিনি পাত্তাই দেননি। কারণ ক্ষমতা দরকার আর শেখ হাসিনার ক্ষমতা ধরে রাখার জন্য এরকম নির্বাচন কমিশন দরকার।

বিএনপির এই নেতা বলেন, নির্বাচন কমিশন একটি সার্বভৌমত্ব স্বাধীন সংস্থা তাদের নিজস্ব আইন আছে। নিজস্ব আইনে তাদের যথেষ্ট ক্ষমতা রয়েছে সুষ্ঠু নির্বাচন করার। কিন্তু কে এম নুরুল হুদা তিনিতো দস্তখত করেছেন। তিনি তো মুচলেকা দিয়েছেন শেখ হাসিনার কাছে যে তিনি সুষ্ঠু নির্বাচন হতে দেবেন না তাই তিনি দেননি। এছাড়াও বিচার বিভাগে কালো মানিক দের মত লোক বসানো হয়েছে। শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকার জন্য যা যা করা দরকার তিনি তাই করেছে। আর তার জন্যই তিনি এসব লোকদেরকে এসব স্থানে বসিয়েছেন। শেখ হাসিনার যা যা দরকার এরা তাই করবে। যদি কেউ বিদ্রোহ করে কেউ যদি সত্য কথা বলে, তাহলে প্রধান বিচারপতি সিনহা সাহেবের যে পরিণীতির সেই পরিণতি ভোগ করতে হবে। তাই কেউ আর সত্য বলার সাহস করছেন না।

তিনি আরো বলেন, আজ আমরা নুরুল হুদার কথা বলছি তিনি তো শেখ হাসিনা চাকর-বাকরদের নিয়ে বসেছে। কিন্তু গণতন্ত্রের হত্যাকারী কে? দেশের শত্রু কে? দেশের সার্বভৌমত্বের শত্রু কে? স্বাধীনতার সর্ব শত্রু কে? সুষ্ঠু ভোটের শত্রু কে? শেখ হাসিনা। তার পদত্যাগ নিশ্চিত করতে হবে। তার পদত্যাগ নিশ্চিত করলেই দেশে গণতন্ত্র ফিরবে। সুষ্ঠু ভোট হবে। নির্বাচন কমিশন স্বাধীন হবে।

বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি হাবিবুন নবী খান সোহেলের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমানউল্লাহ আমান, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলনসহ আরো অনেকে।

About দেশ খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Powered by Dragonballsuper Youtube Download animeshow