ঢাকা, শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১, ১৬ অগ্রহায়ন ১৪২৮, ২১ জ্বিলহজ্ব ১৪৪২

‘মানবিক ভুলের’ জন্য ক্ষমা চাইলেন সাকিব



‘মানবিক ভুলের’ জন্য ক্ষমা চাইলেন সাকিব

আউট না দেয়ায় লাথি মেরে স্টাম্প ভেঙে ফেলা, আম্পায়ারের সঙ্গে তর্কে জড়ানো, আবাহনীর কোচ খালেদ মাহমুদ সুজনের সঙ্গে বাগবিতণ্ডায় জড়িয়ে আবারো দেশের ক্রিকেট উত্তপ্ত করলেন সাকিব আল হাসান। তবে এমন বিতর্কিত ঘটনার জন্ম দিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্ষমা চেয়েছেন ৩৪ বছর বয়সী অলরাউন্ডার। 

‘মানবিক ভুলের’ জন্য নিজের অফিশিয়াল ফেসবুক পেজে সাকিব লেখেন, ‘প্রিয় সমর্থক ও অনুসারীরা, ম্যাচ বিনষ্ট করায় ও মেজাজ হারানোয় আমি সবার কাছে আন্তরিকভাবে দুঃখিত। বিশেষ করে, যারা ম্যাচটি বাড়িতে বসে দেখছিলেন। আমার মতো এক অভিজ্ঞ খেলোয়াড়ের এমনভাবে প্রতিক্রিয়া দেখানো উচিত হয়নি। তবে মাঝেমধ্যে সমস্ত প্রতিকূলতার বিরুদ্ধে দুর্ভাগ্যজনভাবে এমন কিছু ঘটে যায়। আমি দল, ম্যানেজমেন্ট, টুর্নামেন্টের কর্মকর্তা ও আয়োজক কমিটির কাছে মানবিক ভুলের জন্য ক্ষমা চাই। আশা করি, ভবিষ্যতে এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি হবে না। ধন্যবাদ ও ভালোবাসা সবাইকে।’

শুক্রবার মিরপুরের শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে (ডিপিএল) আবাহনী বনাম মোহামেডানের খেলায় এ ঘটনা ঘটে। টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করে ৬ উইকেটে ১৪৫ করে মোহামেডান। ব্যাট হাতে রানের দেখাও পেয়েছেন সাকিব। তার ২৭ বলে ৩৭ রানের সুবাদে লড়াকু পুঁজি পায় মোহামেডান।

জবাব দিতে নেমে শুরুতে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে আবাহনী। ২.৩ ওভারে দলীয় ৯ রানে ৩ উইকেট হারায় তারা। মোহামেডানের হয়ে পঞ্চম ওভার করতে আসেন সাকিব। নিজের প্রথম ওভারে দ্বিতীয় ও তৃতীয় বলে ছয় ও চার খেয়ে বসেন তিনি। তাতেই মেজাজ হারান সাকিব। তবে ষষ্ঠ বলে মুশফিকুর রহিমের বিরুদ্ধে এলবিডব্লিউর আবেদন তোলেন মোহামেডান অধিনায়ক।

তাতে আউটের আবেদন জানালে আম্পায়ার বলেন, ‘নট আউট’। এর দুই সেকেন্ডের ব্যবধানে স্টাম্পের ওপর রাগ ঝাড়েন সাকিব। লাথি মেরে ভেঙে ফেলেন স্টাম্প।

পরের ওভারে বৃষ্টি নামলে খেলা বন্ধ হয়ে যায়। আম্পায়ার মাহফুজুর রহমান যখন মাঠকর্মীদের কাভার আনতে বলছিলেন, তখন সাকিব আম্পায়ারের দিকে এগিয়ে দিয়ে তিনটি স্টাম্পই উপড়ে ফেলে উইকেটে আছাড় মারেন। এ সময় আম্পায়ারকে উদ্দেশ্য করে কথা বলতেও দেখা যায় সাকিবকে।

এরপর ড্রেসিংরুমে ফেরার পথে আবাহনীর কোচ খালেদ মাহমুদের সঙ্গে কথা-কাটাকাটি হয় সাকিবের। মাঠ থেকে ফেরার সময় আবাহনীর ড্রেসিংরুমের দিকে হাত নাড়িয়ে কিছু বলতে দেখা যায় সাকিবকে। এই সময় আবাহনীর ট্রেন্ট থেকে তেড়ে আসতে দেখা যায় সুজনকে। পরে দুই দলের ক্রিকেটাররা এসে দুজনকে দুই ড্রেসিংরুমে টেনে নিয়ে যান। 

ম্যাচটিতে বৃষ্টি আইনে ৩১ রানে জিতেছে সাকিবের মোহামেডান। ১৪৬ রানের লক্ষ্য বৃষ্টির কারণে নেমে আসে ৭৬ রানে। ৯ ওভারে এই রান করতে হতো আবাহনীকে। তবে ৯ ওভারে ৬ উইকেটে ৪৪ রান করতে পারে মুশফিকের দল।


   আরও সংবাদ