ঢাকা, শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২১ জৈষ্ঠ্য ১৪২৯, ১২ রজব ১৪৪৪

বইমেলা বর্জনের হুমকি নুরের



বইমেলা বর্জনের হুমকি নুরের

গণ অধিকার পরিষদের সদস্য সচিব নুরুল হক নুর বলেছেন, এই সরকার আদর্শ পাবলিকেশন্স, গার্ডিয়ান পাবলিকেশন্সের মতো জনপ্রিয় পাবলিকেশন্সগুলোকে বইমেলায় বই প্রকাশের অনুমতি দেয় না। এমন হলে আমরা বইমেলা বর্জন করব।

শুক্রবার (২০ জানুয়ারি) বিকেল ৪টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে তিনি এ হুমকি দেন। বিদ্যুৎ, তেল, গ্যাসসহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে এবং নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে এ বিক্ষোভের আয়োজন করে গণ অধিকার পরিষদ ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ।

নুরুলহক নুর বলেন, আদর্শ প্রকাশনীকে স্টল বরাদ্দ না দিলে বই মেলা বর্জন করা হবে। আদর্শ প্রকাশনীকে বইমেলায় স্টল বরাদ্দ না দিয়ে একুশে বইমেলাকে আওয়ামী লীগ তাদের রাজনৈতিক এজেন্ডা বাস্তবায়নে ব্যবহার করছে। সরকার মুখে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার কথা বললেও বাস্তবে তারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী কাজ করছে। আওয়ামী লীগের নেতারা দেশের টাকা পাচার করে দেশের অর্থনীতিকে ধ্বংস করেছে। ফলে এই সরকার আইএমএফের কাছে ভিক্ষা চাচ্ছে।

নুর বলেন, আমরা আবারও বলছি এই সরকারের অধীনে কোন নির্বাচনে যাবো না। ১৪ ও ১৮ সালের মতো আর পাতানো নির্বাচন বাংলাদেশে হতে দেওয়া হবে না। আমাদের দাবি বর্তমান সংসদ ভেঙ্গে দিয়ে অন্তবর্তী কালীন সরকারের হাতে ক্ষমতা দিয়ে সরকার পদত্যাগ করতে হবে। বিরোধী ৫৪ দল আমাদের রাজপথের সহযোদ্ধা, আমাদের মাঝে ফাটল ধরাতে সরকার পরিকল্পিত ভাবে আমাদের মাঝে  সন্দেহ তৈরি করছে। সরকার বিরোধী রাজনৈতিক দল গুলোর আন্দোলন দমন করার জন্য নানা অপকৌশল হাতে নিয়েছে, তাই সবাইকে বলবো সরকারের ফাদেঁ পা দিবেন না। সরকারের পতন না হওয়া পর্যন্ত আমাদের ঐক্যবদ্ধ ভাবে আন্দোলন  চালিয়ে যেতে হবে।

নুর অভিযোগ করে বলেন, আজকে যুব অধিকার পরিষদের পূর্বঘোষিত কর্মসূচি ছিলো, সেই কর্মসূচি পালন করতে গিয়ে কক্সবাজার ও সুনামগঞ্জে পুলিশের বাধাঁর সম্মুখীন হতে হয়েছে। এছাড়াও পিরোজপুরের ক্ষমতাসীন দলের সন্ত্রাসীদের দ্বারা হামলার শিকার হতে হয়েছে। পুলিশ গাজীপুরের এক ভাইকে থানায় নিয়ে নির্যাতন করে মেরে ফেলেছে, চট্টগ্রামে ডায়ালাইসিসের ফি কমানো দাবিতে আন্দোলন করার কারণে থানায় নিয়ে নির্যাতন করেছে। এভাবে দেশের বিভিন্ন  স্থানে বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীরা হয়রানি, হামলা মামলার শিকার হচ্ছে, এসব থেকে সাধারণ মানুষও রেহাই পাচ্ছে না। বিদ্যুৎ ও গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে সারাদেশে জনগণকে সাথে নিয়ে গণআন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

গণঅধিকার পরিষদের ঢাকা দক্ষিণের আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. মালেক ফরাজীর সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব ঈসমাইল হোসেন বন্ধনের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন গণঅধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক মুহাম্মদ রাশেদ খান, ফারুক হাসান, মাহফুজুর রহমান খান, মো: সোহরাব হোসেন, আবু হানিফ, যুগ্ম সদস্যসচিব তারেক রহমান, ফাতেমা তাসনিম, শামসুদ্দিন শ্রমিক অধিকার পরিষদের সভাপতি আবদুর রহমান সেক্রেটারি সোহেল রানা সম্পদ, যুব অধিকার পরিষদের সভাপতি মনজুর মোর্শেদ মামুন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রবিউল ইসালম, ছাত্র অধিকার পরিষদের সভাপতি বিন ইয়ামিন মোল্লা সেক্রেটারি আরিফ আদিব প্রমুখ।


   আরও সংবাদ