ঢাকা, শনিবার, ১২ জুন ২০২১, ২৯ আশ্বিন ১৪২৮, ২ জ্বিলক্বদ ১৪৪২

১৭৬ কোটি টাকা আত্মসাৎ, ১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা



১৭৬ কোটি টাকা আত্মসাৎ, ১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা

১৭৬ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে এবি ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) শামীম আহমেদ, মসিউর রহমান এবং এরশাদ ব্রাদার্স করপোারেশনের মালিক এরশাদ আলীসহ ১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন-দুদক।

মঙ্গলবার (৮ জুন) বিকালে সংস্থাটির জেলা সমন্বিত কার্যালয় ঢাকা-১-এ মামলাটি দায়ের করেন উপ সহকারি পরিচালক আবুল কালাম আজাদ।

মামলার আসামিরা হলেন- এরশাদ ব্রাদার্স করপোরেশনের মালিক এরশাদ আলী, এবি ব্যাংক কাকরাইল শাখার সাবেক ম্যানেজার এ বি এম আব্দুস সাত্তার, কাকরাইল শাখার সাবেক রিলেশনশিপ ম্যানেজার মোহাম্মদ আবদুর রহিম, কাকরাইল শাখার এসভিপি মো. আনিসুর রহমান, সাবেক ভিপি শহিদুল ইসলাম, এভিপি মো. রুহুল আমিন, ইভিপি ওয়াসিকা আফরোজ, সাবেক ইভিপি মুফতি মোস্তাফিজুর রহমান সাবেক এসইভিপি সালমা আক্তার, এভিপি মো. এমারত হোসেন ফকির, সাবেক প্রিন্সিপাল অফিসার মো. তৌহিদুল ইসলাম, এমভিপি শামীম এ মোরশেদ, কাকরাইল শাখার ভিপি খন্দকার রাশেদ আনোয়ার, এভিপি সিরাজুল ইসলাম, সাবেক ভিপি মোহাম্মদ মাহফুজ উল ইসলাম, কাকরাইল শাখার ডিএমডি মশিউর রহমান চৌধুরী ও সাবেক এমডি শামীম আহমেদ।

মামলার এজাহারে বলা হয়, ২০১০ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত এবি ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে ব্যবসায়িক কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে এরশাদ ব্রাদার্স। এই সময়ে প্রতিষ্ঠানটির কিছু অসাধু কর্মকর্তার সংঙ্গে সম্পর্ক তৈরি করেন এরশাদ আলী। প্রতিষ্ঠানের কোনো সামর্থ্য যাচাই না করে সিনোহাইড্রো কর্পোরেশনসহ চীনা ৩ প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে পাওয়া পদ্মা ব্রিজের রেলসেতু প্রকল্পে পাথর সরবরাহের কার্যাদেশ দেখিয়ে এরশাদ ব্রাদার্স ২০১৫ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত ১১৪ কোটি টাকারও বেশি ঋণ গ্রহণ করে। মোট ৬ ধাপে এই টাকা উত্তোলন করেন এরশাদ আলী। সুদে-আসলে পরে এই অর্থের পরিমাণ দাঁড়ায় ১৬৬ কোটি টাকায়।

দুদক-এর অনুসন্ধানে উঠে আসে, এবি ব্যাংকের কাকরাইল ইসলামী ব্যাংকিং শাখার সাবেক ম্যানেজার এবিএম আব্দুস সাত্তারসহ ৫ কর্মকর্তা কার্যাদেশসহ সংশ্লিষ্ট কাগজপত্র কোনোরকম যাচাই-বাছাই ছাড়াই এরশাদ আলীকে এই ঋণ দেন। এছাড়াও একই প্রতিষ্ঠানকে সাতটি অবৈধ ব্যাংক গ্যারান্টির মাধ্যমে ১০ কোটি টাকা ঋণ দিয়ে আত্মসাতের ঘটনা ঘটে। এরশাদ ব্রাদার্সের কাছে এবি ব্যাংকের সবশেষ পাওনা টাকার পরিমাণ দাঁড়ায় ১৭৬ কোটি টাকা।

দেশখবর/এনকে


   আরও সংবাদ