ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ আশ্বিন ১৪৩১, ৬ জ্বিলহজ্ব ১৪৪৫

দুপুরে মুক্তিপণ দাবি, রাতে মিলল হাত-পা বাঁধা মৃতদেহ



দুপুরে মুক্তিপণ দাবি, রাতে মিলল হাত-পা বাঁধা মৃতদেহ

লক্ষ্মীপুরে একটি ভবনের কক্ষ থেকে মো. রিয়াজ হোসেন (২৫) নামে এক যুবকের হাত-পা বাঁধা রক্তমাখা মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) দিনগত রাত আড়াইটার দিকে সদর উপজেলার মান্দারী বাজারের দিঘলী সড়কের পাশের একটি ভবন থেকে মৃতদেহটি উদ্ধার করা হয়। মৃতদেহ থেকে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছিল।

এর আগে বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টার দিকে নিহত রিয়াজের মা খুরশিদা বেগমের ফোনকলে একটি নাম্বার থেকে কল দিয়ে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে দুর্বৃত্তরা। এ বিষয়ে চন্দ্রগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দেয় তা মা। পরে পুলিশ অভিযানে নেমেই গভীর রাতেই মৃতদেহটির সন্ধান পায়।

রিয়াজ সদর উপজেলার মান্দারী ইউনিয়নের মটবী গ্রামের আহম্মদ উল্যা ভূইয়া বাড়ির তোফায়েল আহম্মদ দুলালের ছেলে। সে মায়ের সাথে নানার বাড়ির দত্তপাড়া ইউনিয়নের করইতোলা গ্রামের বসবাস করতো।

পুলিশ জানায়, মান্দারী বাজারের দিঘলী সড়কের পাশে থাকা ভবনের নীচতলার একটি কক্ষে লাশটি পাওয়া যায়। লাশের হাত-পা বাঁধা ছিল। কক্ষ থাকা বিছানার জাজিম রক্তমাখা ছিল। মৃতদেহ থেকে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছিল।

পুলিশ আরও জানায়, রিয়াজ কয়কদিন থেকে নিখোঁজ ছিল। তার মা খুরশিদা বেগমের কাছে বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টার দিকে মুক্তিপণের জন্য ফোন আসে। অন্যাথায় খুন করে লাশ গুম করবে বলে হুমকি দেয়। এ বিষয়ে রিয়াজের মা চন্দ্রগঞ্জ থানায় অভিযোগ করে।

নিহত রিয়াজের মা খুশিদা বেগম জানান, গত মঙ্গলবার রাত থেকে তার ছেলের কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টার দিকে এবং বিকেলে তার মোবাইলে ছেলের মুক্তিপণের জন্য ৫ লাখ টাকা দাবি করা হয়। বিষয়টি তিনি পুলিশকে জানান।

চন্দ্রগঞ্জ থানার এসআই আবদুর রহিম জানান, রিয়াজ গত দুই মাস থেকে তার সহকর্মীদের সাথে ওই ভবনে ভাড়া থাকতো। এ ঘটনায় দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। তবে তাদের নাম প্রকাশ করেননি তিনি।

জেলা পুলিশ সুপার মাহফুজ্জামান আশরাফ বলেন, খবর পেয়ে রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করি। মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। হত্যাকারীদের চিহ্নিত করে তাদের গ্রেফতার করা হবে।


   আরও সংবাদ